প্রবাসিরা ২টাকা বেশির লোভে হুন্ডিতে টাকা পাঠায় না!

প্রবাসিরা ২টাকা বেশির লোভে হুন্ডিতে টাকা পাঠায় না। !! যখন মনে পড়ে !! ৮থেকে১০হাজার টাকার পাসপোর্ট ১১-১৪হাজার টাকা দিয়ে করতে হয়েছিল❗

পাসপোর্ট এর ভুল সংশোধন করতে ৫০হাজার টাকার বান্ডিল দিতে হয়েছিল❗ ১-২লক্ষ টাকার ভিসা নিতে ৪-৫লক্ষ টাকা দিতে হয়েছিল❗

সাড়ে ৮হাজার টাকার মেডিক্যাল ১৭থেকে২০ হাজার টাকা দিয়ে করতে হয়েছিল❗ দেশ থেকে চওড়া মূল্যে বিমানের টিকিট ক্রয় করতে হয়েছিল❗

বিমান বন্দরে হয়রানী যে কত হয়রানি মোকাবিলা করতে হয়েছিল❗ বিমান থেকে নেমে ২থেকে৩ ঘন্টা পরও মালামাল সামগ্রী ঠিক মত না পাওয়া এবং মূল্যবান জিনিষ উদাও হয়ে যাওয়া❗

এরপর বিদেশে যাওয়ার পরে কাজ ঠিক মত না পাওয়া এবং দেশিয় এম্বাসি থেকে কোন প্রকার হেল্প না পাওয়া❗ এতো হাজারো সমস্যা, হয়রানি মোকাবিলা করার পরেও কি দেশের কথা ভাবতে ইচ্ছে করে, করবেইবা কেন? ❓

প্রধানমন্ত্রী যতটা সুন্দর করে প্রবাসিদের নিয়ে টেলিভিশনে বক্তব্য প্রধান করেন ততটা সুন্দর করে যদি নিজের দায়িত্বপালন করতেন তাহলে কোন প্রবাসি হুন্ডিতে টাকা পাঠানোর চিন্তাও মাথায় আনতো না

মেহমানদের হাতের গিফট পেতে হলে দারোয়ান কে বলা উচিৎ নিজেদের। পোষা কুকুরগু’লোর গলায় শিকল পরাতে বা আট’কে রাখার ব্যবস্থা করতে।