মায়ের জন্য পাত্র চেয়ে বিজ্ঞপ্তি

বাবা মা’রা গেছেন। দুই সন্তান নিজেদের ব্যবসাসহ কাজকর্মে ব্যস্ত থাকেন বলে মাকে সেভাবে সময় দিতে পারেন না। কিন্তু মা যেন একাকিত্বে না ভোগেন, তিনি যেন ভালো থাকেন, সেটা চান তারা। আর এ ভাবনা থেকেই মায়ের জন্য পাত্র চেয়ে বিজ্ঞ’প্তি দিয়েছেন তারা।

ফেসবুকে পাত্র-পাত্রী খোঁজার অন্যতম বড় প্লাটফর্ম ‘বিসিসিবি ম্যাট্রিমনিয়াল’ গ্রুপে সম্প্রতি এ বিজ্ঞ’প্তি দেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞ’প্তিটি পোস্ট করেছেন ঢাকার কেরানীগঞ্জের

বাসিন্দা মোহা’ম্ম’দ অ’পূর্ব। তিনি ‘জি অ্যান্ড টেক’ নামে একটি অনলাইন ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা এমডি। তার বড় ভাই ইমর’ান হোসেন। পেশায় ব্যবসায়ী ইমর’ান বিয়ে করেছেন, তার পাঁচ বছরের এক সন্তানও আছে।

বিজ্ঞ’প্তির পাত্রী অর্থাৎ অ’পূর্বের মায়ের নাম ডলি আক্তার। তার বয়স ৪২ বছর। পড়েছেন অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত। ইমর’ান-অ’পূর্বর বাবা ঈয়াদ আলী ক্যানসারসহ বিভিন্ন রোগে

ভুগে বছর দুয়েক আগে মা’রা গেছেন। মাকে পারিবারিকভাবেই বিয়ে দেওয়ার ইচ্ছের কথা জানিয়ে অ’পূর্ব বিজ্ঞ’প্তিতে লিখেছেন, বাবা মা’রা গেছেন, তাই আম্মুর জন্য পাত্র খুঁজছি।

কেমন পাত্র চান, সেটাও বিজ্ঞ’প্তিতে জানিয়েছেন অ’পূর্ব। তার স’ঙ্গে মায়ের ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, পাত্র ঢাকার আশপাশের বাসিন্দা হলে ভালো। ব্যবসায়ী বা জব হোল্ডার, শিক্ষাগত যোগ্যতা কম হলেও সমস্যা নেই।

নামাজি ’হতে হবে। মানে একদম সাদামাটা একজন যিনি আম্মুর জীবনের বাকি চলার পথগু’লোর স’ঙ্গী হবেন। বয়স ৪২-৫০ বছর হলে ভালো হয়।

বিজ্ঞ’প্তিটি পোস্ট হওয়ার পর ভাসছে প্রশংসায়। প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত অ’পূর্বর সেই বিজ্ঞ’প্তিতেই মন্তব্য পড়েছে প্রায় ৬০০। এর প্রায় সবই প্রশংসাসূচক।

মোহনা আফরোজ নামে একজন লিখেছেন, ‘কী দারুণ প্রগতিশীল মানসিকতার সন্তান তিনি গড়ে তুলেছেন, অ’ভিবাদন!’

অনেকে ডলি আক্তারের জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন মন্তব্যের ঘরে। লাম মীম আহমেদ নামে একজন লিখেছেন, ‘এটা খুবই অনুপ্রেরণামূলক।

আশাকরি, আপনার মা তার জন্য যোগ্য একজন জীবনস’ঙ্গী পাবেন’।