হজে গিয়ে ভিক্ষা, সেই মতিয়ার কারাগারে

বেসরকারিভাবে হজ করতে গিয়ে সৌদিতে ভিক্ষাবৃত্তি করা সেই মতিয়ার রহমান ওরফে মিন্টুকে ঢাকার বিমানবন্দর থেকে গ্রে’’প্তার করা হয়েছে। গত শুক্রবার সৌদি থেকে ফেরার সময় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৫৪ ধা’রায় তাঁকে গ্রে’’প্তার করে ইমিগ্রে’শন পু’লিশ। পরে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতে মিন্টুকে হাজির করা হয়। আ’দালত তাঁকে কারা’গারে পাঠান। ম’ঙ্গলবার (২ আগস্ট) ঢাকার অ’পরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মোহা’ম্ম’দ জাফর হোসেন বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিসি জাফর বলেন, গত ৩০ জুলাই ঢাকাকার সিএমএম আ’দালতে করা জিডি অনুযায়ী ৫৪ ধা’রায় মিন্টুকে গ্রে’’প্তার করা হয়। তাঁর আচরণে দেশের ভাবমূর্তি মা’রাত্মকভাবে ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে অ’ভিযোগ আনা হয়েছে।

৫৪ ধা’রার আবেদনে উল্লেখ হয়, আ’সামি গত ১৮ জুন ধানসিঁড়ি ট্রাভেলসের মাধ্যমে হজে সৌদিআরব যান। এরপরে হজ না করে ভিক্ষাবৃত্তি শুরু করেন। ভিক্ষাবৃত্তির খবর পেয়ে ম’দিনা পু’লিশ তাকে গ্রে’’প্তার করে। এরপরে হজ পু’লিশের এজেন্সির মাধ্যমে জামিনে মুক্তি পান। বি’ষয়টি দেশীয় ও আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়। এতে দেশের ভাবমূর্তি মা’রাত্মকভাবে ক্ষুণ্ন হয়।

জানা গেছে, মিন্টুকে গত শনিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতে হাজির করা হলে তাঁর জামিন নামঞ্জুর করে কারা’গারে পাঠানোর আদেশ দেন সিএমএম আ’দালত। এ মা’মলায় ওই দিন জামিনের আবেদন করেন ঢাকা বারের আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ।আবুল কালাম আজাদের অ্যাসোসিয়টের সদস্য কামর’ুজ্জামান সুমন বলেন, আ’সামির দুই হাত নেই। তবে, তার বেশ কয়েকটি বাড়ি রয়েছে। আ’সামির আ’ত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে এসব জানা গেছে।

বেসরকারিভাবে হজ করতে গিয়ে সৌদিতে ভিক্ষাবৃত্তি করা সেই মতিয়ার রহমান ওরফে মিন্টুকে ঢাকার বিমানবন্দর থেকে গ্রে’’প্তার করা হয়েছে। গত শুক্রবার সৌদি থেকে ফেরার সময় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৫৪ ধা’রায় তাঁকে গ্রে’’প্তার করে ইমিগ্রে’শন পু’লিশ। পরে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতে মিন্টুকে হাজির করা হয়। আ’দালত তাঁকে কারা’গারে পাঠান। ম’ঙ্গলবার (২ আগস্ট) ঢাকার অ’পরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মোহা’ম্ম’দ জাফর হোসেন বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিসি জাফর বলেন, গত ৩০ জুলাই ঢাকাকার সিএমএম আ’দালতে করা জিডি অনুযায়ী ৫৪ ধা’রায় মিন্টুকে গ্রে’’প্তার করা হয়। তাঁর আচরণে দেশের ভাবমূর্তি মা’রাত্মকভাবে ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে অ’ভিযোগ আনা হয়েছে।

৫৪ ধা’রার আবেদনে উল্লেখ হয়, আ’সামি গত ১৮ জুন ধানসিঁড়ি ট্রাভেলসের মাধ্যমে হজে সৌদিআরব যান। এরপরে হজ না করে ভিক্ষাবৃত্তি শুরু করেন। ভিক্ষাবৃত্তির খবর পেয়ে ম’দিনা পু’লিশ তাকে গ্রে’’প্তার করে। এরপরে হজ পু’লিশের এজেন্সির মাধ্যমে জামিনে মুক্তি পান। বি’ষয়টি দেশীয় ও আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়। এতে দেশের ভাবমূর্তি মা’রাত্মকভাবে ক্ষুণ্ন হয়।

জানা গেছে, মিন্টুকে গত শনিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতে হাজির করা হলে তাঁর জামিন নামঞ্জুর করে কারা’গারে পাঠানোর আদেশ দেন সিএমএম আ’দালত। এ মা’মলায় ওই দিন জামিনের আবেদন করেন ঢাকা বারের আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ।আবুল কালাম আজাদের অ্যাসোসিয়টের সদস্য কামর’ুজ্জামান সুমন বলেন, আ’সামির দুই হাত নেই। তবে, তার বেশ কয়েকটি বাড়ি রয়েছে। আ’সামির আ’ত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে এসব জানা গেছে।