ডা’বের পানির গুনাগুণ : উপকারীতা ও অপকারীতা’

সাধারণত আমর’া গরমকালে তৃষ্ণা মেটাতে ডাবের পানি পান করে থাকি কিন্তু ডাবের পানির গু’নাগু’ণ সম্পর্কে আমর’া অনেকেই অবগত নই। ডাবের পানিতে রয়েছে মানব শরীরের জন্য উপকারী অনেক

গু’রুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান। অ্যামিনো অ্যাসিড, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ম্যাংগানিজ, জিংক এবং ম্যাগনেসিয়ামে পূর্ণ ডাবের পানি আমা’দের

শরীরের রোগ প্রতিরোধ করে দে’হের সুস্থতার স্থায়িত্ব বাড়ায়। চলুন জেনে নেয়া যাক খাবার খাওয়ার আগে পরে দিনের যেকোন সময় পান করা যায় এমন সুপেয় পানীয়ের উপকারীতা।

Benefit-of-Coconut-Water-১। ডাবের পানি নিয়মিত পান করলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। ২। ডাবের পানি শরীরে পানিশূন্যতা দূর করে দে’হে পানির ভারসাম্য বজায় রাখে।

৩। ইউরিন ইনফেকশন দূর করে এবং কিডনির রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃ’দ্ধি করে। ৪। ডাবের পানি র’ক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ কমিয়ে

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে। ৫। ডাবের পানি ত্বকের তৈলাক্ততা, ব্রণ এবং রোদে পোড়া দাগ দূর করতে সাহায্য করে। ৬। র’ক্ত সঞ্চালন ঠিক রাখে এবং হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি হ্রাস করে। ৭। ডাবের পানি শরীরে বয়সের ছাপ পড়তে না দিয়ে তারুণ্য ধরে রাখে। ৮। দাঁতের মাড়ির রোগ এবং ঠান্ডা লাগা থেকে প্রতিরোধ করে এই যাদুকরী পানীয়। ৯। ক্লান্তি দূর করে কর্মক্ষমতা বৃ’দ্ধি করে। ১০। হজম ক্ষমতা বাড়ায় ও ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে। ১১। ডাবের পানি পানে বুকের জ্বা’লাপোড়া বন্ধ হয়।

Benefit-of-Coconut-Water-(2) প্রচলিত আছে তিনিই সবচেয়ে ভাল ডাক্তার যিনি ঔষুধের সাথে সাথে রোগীকে ঔষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা বলে দেন। যাদুকরী ডাবের পানির উপকারীতা বলে শেষ করা না গেলেও এর বেশকিছু অ’পকারীতা রয়েছে যা আমা’দের অনেকেরই অজানা। ডাবের পানির উপকারীতা এবং অ’পকারীতা জেনে আমর’া সহজেই এই প্রাকৃতিক পানীয়ের গু’ণাগু’ণকে করতে পারি আরো অর্থবহ এবং স্বাস্থ্যকর। চলুন জেনে নেই ডাবের পানির কিছু অ’পকারীতা।

১। ডাবের পানিতে চিনির পরিমাণ খুব কম থাকলেও এতে প্রচুর ক্যালোরি রয়েছে। তাই যারা ওজন কমাতে উদ্যোগ গ্রহণ করছেন তাদের ডাবের পানি এড়িয়ে যাওয়াই উত্তম।

২। প্রতিদিন ডাবের পানি পান র’ক্তে শর্করার মাত্রা বৃ’দ্ধি করে যা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য অত্যন্ত ক্ষ’তিকর। ৩। ডাবের পানিতে প্রচুর সোডিয়াম থাকে তাই অতিরিক্ত ডাবের পানি পান উচ্চ র’ক্তচাপ এবং হৃদরোগে আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার সম্ভাবনা বৃ’দ্ধি করে।যেকোন খাদ্য দ্রব্য অধিক গ্রহণ করলে তা মানবদে’হের জন্য হু’মকি হয়ে দাঁড়ায় তাই ডাবের পানি পানের সুফল পেতে পরিমিত হারে দুই একদিন বিরতিতে গ্রহণ করা উচিত।

[X]