যেভাবে বুঝবেন থা’ইরয়েড গ্রন্থির ক্যা’ন্সার, কী করবেন?

শরীরের অন্যান্য অ’ঙ্গের মতো থাইরয়েড গ্রন্থিতেও টিউমা’র বা ক্যানসার ’হতে পারে। এ টিউমা’রকে নডিউল বলা হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে থাইরয়েড গ্রন্থি বা এর অংশবিশেষ ফুলে ওঠা মানেই

কিন্তু ক্যানসার নয়। তবে অনেক সময় ক্যানসার পর্যন্ত ’হতে পারে। থাইরয়েড গ্রন্থির কোনো অংশের কোষ সংখ্যা অনিয়ন্ত্রিতভাবে বৃ’দ্ধি পেলে

তাকে থাইরয়েড ক্যানসার বলে। গত তিন দশকে থাইরয়েড ক্যানসারের ঘটনা নাটকীয়ভাবে বৃ’দ্ধি পেয়েছে এবং এটি এখন মহিলাদের মধ্যে

দ্রুততম ক্রমবর্ধমান ক্যানসার। ক্যানসারে আ’ক্রা’ন্ত পুরুষদের মধ্যে প্রায় ৫.৪ শতাংশ এবং মহিলাদের মধ্যে ৬.৫ শতাংশ থাইরয়েড ক্যানসারভুক্ত। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এর কারণ অস্পষ্ট।

এ বি’ষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন সিওমেক হাসপাতালের নাক-কান-গলা রোগ বিশেষজ্ঞ এবং হেড-নেক সার্জন ডা. মো. আব্দুল হাফিজ শাফী।

থাইরয়েড ক্যানসারে যে লক্ষণগু’লো দেখা দিতে পারে- গলার সম্মুখভাগে ফুলে ওঠা এবং এই ফোলা খাবার গ্রহণে ঢোক গেলার সময় ওঠানামা করে। ক্যানসার হলে সেই ফোলা অংশটি বেশ শক্ত হয়। স’ঙ্গে ওজন কমে যায়। থাইরয়েড গ্রন্থির আশপাশে একটি বা একাধিক টিউমা’র ’হতে পারে; উভয় পাশে টিউমা’র ’হতে পারে। আশপাশের লিম্ফ নোডগু’লো ফুলে উঠতে পারে। থাইরয়েড টিউমা’র স্নায়ুকে আ’ক্রা’ন্ত করলে গলার স্বর পরিবর্তন ’হতে পারে। গলার স্বর মোটা বা ফ্যাসফ্যাসে ’হতে পারে।

থাইরয়েড টিউমা’র শ্বা’সনালির ওপর চাপ সৃষ্টির ফলে শ্বা’সকষ্ট ’হতে পারে। এ সময় খেয়াল রাখতে হবে বংশে বা পরিবারে কারও থাইরয়েড ক্যানসারের ইতিহাস আছে কিনা। থায়রয়েড ক্যানসার এমন একটি রোগ, যা সময়মতো চিকিৎসা করলে ৯৫ শতাংশ ক্ষেত্রেই সম্পূর্ণ আরোগ্য লাভ সম্ভব। তবে অবশ্যই সময়মতো সম্পূর্ণ চিকিৎসা করাতে হবে। গলার সামনে ফুলে উঠলে যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি একজন নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞকে দেখানো উচিত। তিনি প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা (আলট্রাসনোগ্রাম, থাইরয়েড ফাংশন টেস্ট এবং সবচেয়ে স্পেসিফিক FNAC)

করে দেখবেন এটা কোন ধরনের রোগ। থাইরয়েড ক্যানসারের ক্ষেত্রে কার্যকরী চিকিৎসা হচ্ছে অ’পারেশন বা সার্জারি করা। পরীক্ষার পর আ’ক্রা’ন্তের ধরনের ওপর নির্ভর করবে থাইরয়েড গ্রন্থির কতটুকু কাটতে হবে। অ’পারেশনের পর এর প্রকারভেদের ওপর নির্ভর করে নির্দিষ্ট ডোজের রে’ডিও আয়োডিন থেরাপি নেওয়া লাগতে পারে। রোগীর জন্য সবচেয়ে গু’রুত্বপূর্ণ তথ্য হচ্ছে অ’পারেশনের পর চিকিৎসকের অধীনে সারা জীবন ফলোআপে থাকতে হবে।