অ্যা’লার্জি থেকে জিহ্বা-ফোলা ও জ্বা’লাপোড়া, কী করবেন

অ্যালার্জির কারণে নানা উপসর্গ দেখা দেয় শরীরে। খাবার থেকে অনেক সময় অ্যালার্জি হয়ে থাকে। এই রোগের মূল উপসর্গ চুলকানি ছাড়াও চোখের প্রদাহ এবং জ্বা’লাপোড়া। অনেক সময় জিহ্বাও ফুলে উঠে।

অ্যালার্জি থেকে জিহ্বা ফোলা ও জ্বা’লাপোড়া হলে করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছেন ডা. মো. ফারুক হোসেন। অ্যালার্জিক রি-অ্যাকশনের

কারণে কিছু খাবার গ্রহণের পর মুখ, জিহ্বা এবং মাড়ি চুলকাতে থাকে। যদি চুলকানির পরিমাণ অল্প হয় এবং শুধু মুখে সীমাব’দ্ধ থাকে তাহলে এটিকে আমর’া ওরাল অ্যালার্জি সিনড্রোম হিসেবে

প্রাথমিকভাবে রোগ নির্ণয় করি। রোগীর সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করেই সি’দ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে। অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়ার কারণে হঠাৎ করে

জিহ্বা ফুলে যেতে পারে। এক্ষেত্রে অ্যালার্জিজনিত কারণ হলে দেরি না করে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। ফোলাযুক্ত জিহ্বা ডাউন সিনড্রোম, সংক্রমণ, জেনেটিক, অচলাবস্থা, জিহ্বার ক্যান্সার,

এনিমিয়া এবং লিউকেমিয়ার ক্ষেত্রে দেখা যেতে পারে। জিহ্বার টেস্ট বাডগু’লোর প্রদাহের অন্যতম কারণ অসাবধানতাবশত জিহ্বার ওপর কামড়।

যেসব খাবার এসিডিক, অতিরিক্ত মসলাযুক্ত অথবা লবণাক্ত সেসব খাবারও জিহ্বায় টেস্ট বাডগু’লোর প্রদাহ সৃষ্টি করে ফোলাভাব এনে দিতে পারে। দীর্ঘ সময় ধরে জিহ্বায় ফোলাভাব থাকলে তা এক্রোমেগালি, সারকোমা, ওরাল ক্যান্সার অথবা ডাউন সিনড্রোমের কারণে ’হতে পারে।

যখন জিহ্বা ফুলে যায় তখন জিহ্বার প্রদাহের সৃষ্টি হয় এবং মাঝে মাঝে জিহ্বার স্বাভাবিক রঙের পরিবর্তন হয়ে থাকে। এর কারণে জিহ্বা খুব মসৃণ দেখা যেতে পারে।

যখন আমা’দের শরীর যথাযথ কাজ করার জন্য পর্যা’প্ত পরিমাণে ভিটামিন বি১২ শোষণ করতে পারে না তখন পারনিসাজ র’ক্তস্বল্পতা দেখা দিয়ে থাকে।

এ ধরনের র’ক্তস্বল্পতায় জিহ্বার প্রদাহ বা জ্বা’লাপোড়া অনুভূ’ত ’হতে পারে। যদি কারো টুথপেস্টের প্রতি অ্যালার্জি থাকে তাহলে জিহ্বার প্রদাহ বা জ্বা’লাপোড়া ’হতে পারে। টুথপেস্ট ছাড়া মাউথওয়াশ, কৃত্রিম দাঁত ও কিছু ওষুধের কারণে অ্যালার্জিক রি-অ্যাকশনে একই অবস্থার সৃষ্টি হয়ে থাকে।