free hit counter

ডা’য়েট শুরু করেছেন? বারে বারে অল্প খেলে কি সত্যিই ওজন কমে?

অনেকের মতে, খাবার খেলে বিপাক হার বাড়ে, ফলে একটু একটু করে সারা দিন ধরেই শরীর থেকে মেদ ঝরে। এই দাবিকে ঘিরে গবেষণাও কম হয়নি! কী বলছে সেই সব গবেষণা?

বছর ভর অনেকের বাড়তি ওজন নিয়ে তেমন মাথা ব্যথা না থাকলেও পুজোর পোশাকে নিজেকে দেখার আগে ওজন ঝরানোর তোড়জোড় শুরু

করেন অনেকেই। শুরু হয় ডায়েট অর্থাৎ, নিয়ম মেনে খাওয়া। ওজন কমানোর জন্য কী খাচ্ছেন যেমন জরুরি, তেমনই কতটা খাচ্ছেন, সেটাও কিন্তু বেশ জরুরি। দ্রুত ওজন কমাতে হলে

কারও মতে দিনে তিন বেলা খাবার খাওয়াই যথেষ্ট। আবার কেউ কেউ মনে করেন, দিনে ছ’ বার খেতে হবে, তবেই দ্রুত মেদ ঝরবে। এর

সপক্ষে তাঁদের যুক্তি দিনে বার বার অল্প পরিমাণে খাবার খেলে বিপাক হার বাড়ে, ফলে একটু একটু করে সারা দিন ধরেই শরীর থেকে মেদ ঝরে। এই দাবিকে ঘিরে গবেষণাও কম হয়নি! কী বলছে সেই সব গবেষণা?

সত্যিই কি ছ’বার খেলে দ্রুত ঝরে ওজন? না! সারা দিন ধরে খাবার খেলেই যে বিপাক হার বাড়বে আর বেশি ক্যালোরি ঝরবে, এই রকম

কোনও প্রমাণ মেলেনি গবেষণায়। খাবার হজমের স’ঙ্গে বিপাক প্রক্রিয়ার যোগাযোগ আছে ঠিকই। তবে সেটা কত বার খাচ্ছেন, তার উপর নয়, কী পরিমাণে খাচ্ছেন, তার উপর। কাজেই তিন বার হোক কিংবা ছ’ বার, খাবারের পরিমাণ এক থাকলে বিপাক হারের হেরফের হয় না।

বার বার খেলে কি কম খিদে পায়? উল্টোপাল্টা খাবারের খিদে কমাতে গেলে বার বার পুষ্টিকর খাবার খাওয়া ভাল। দীর্ঘ ক্ষণ খালি পেটে থাকলে র’ক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। সে ক্ষেত্রে র’ক্তে শর্করার মাত্রার নিয়ন্ত্রণে রাখতে বার বার অল্প করে খাওয়া ভাল।

তবে রোগা ’হতে গিয়ে হঠাৎ করে তিন বার খাওয়ার অভ্যাসকে ছ’ বারে বদলে ফেলবেন না। বরং পুজোর আগে এটা করতে গিয়ে ওজন বেড়ে যেতে পারে। কারণ বার বার খাওয়ার সময় ঠিক মতো ক্যালোরির পরিমাপ না থাকলে অতিরিক্ত খাওয়া হয়ে যেতে পারে। তখন কিন্তু মুশকিল। তবে যদি কেউ দীর্ঘ সময় ধরে ছ’ বার খাওয়ার অভ্যাসকে আয়ত্ত করে ফেলেন, তা হলে অসুবিধে নেই। কাজেই বারটা তিন হোক বা ছয়, খাবারের পরিমাণ আর সঠিক ডায়েটই ঝরাবে আপনার ওজন। কেবল ডায়েট করলেই হবে না। দ্রুত ওজন ঝরাতে হলে কিন্তু নিয়মিত শরীরচর্চাও করতে হবে। ওজন ঝরাতে হলে বিপাক হার বাড়াতে হবে। আর ডায়েট ও শরীরচর্চার সঠিক মিশেলেই এমনটা সম্ভব!