free hit counter

৭৫ বছর পর বোনকে পেয়ে অঝোরে কাঁ’দলেন ভাই

এক বছর নয়, দুই বছর নয়, পুরো ৭৫ বছর পর হারানো ভাইয়ের সন্ধান পেয়েছেন এক বোন। পাকিস্তানের সেই মুসলিম বোন তার ভারতীয়

‘শিখ’ ভাইয়ের স’ঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। সাক্ষাতের পর দুজন দুজনকে জড়িয়ে অঝোরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। ১৯৪৭ সালে দ্বি-জাতির তত্ত্বের

ভিত্তিতে ভাগ হয় ভারতবর্ষ। তখন শুরু হয় সাম্প্রদায়িক দা’ঙ্গা। ভারতে মুসলমানদের কচুকা’টা করছিল উগ্র হিন্দুরা। তখন প্রাণ বাঁচাতে সিংহভাগ মুসলমান চলে যান পাকিস্তান।

সেই সময় পাকিস্তানে পালাতে গিয়ে এক ছেলে ও এক মেয়েকে হারিয়ে ফেলেন এক দম্পতি। পাকিস্তানে গিয়ে তাদের ঘরে জন্ম নেয় আরেক

মেয়ে। সেই মেয়েই অবশেষে ভারতে সাত দশক আগে হারানো ভাইয়ের সাক্ষাৎ পেয়েছেন। সম্প্রতি পাকিস্তানের কারতাপুরের গোরদাওয়ারা ডারবার সাহিব এলাকায় হুইলচেয়ারে আসেন আমৃ’ত

সিং নামের ভারতীয় ভাই। সেখানে হাজির হন কুলসুম আক্তার নামের পাকিস্তানি বোন। ভাই-বোনের সাক্ষাতের পর উভয় কান্নায় ভেঙে পড়লে পরিবেশ শোকে ভারী হয়।

আমৃ’ত সিং আত্তারি-ওগাহা সীমা’ন্ত দিয়ে পাকিস্তানে আসেন। আর কুলসুম আক্তার ছেলে শাহাজাদ আহম’দের স’ঙ্গে পাকিস্তানের ফয়সালাবাদ থেকে কারতাপুরে আসেন। দীর্ঘদিনের হারানো ভাইকে পেয়ে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি ৬৫ বছরের কুলসুম আক্তার। তাকে জড়িয়ে অনেকক্ষণ কান্না করেন তিনি। কুলসুম এক্সপ্রেস ট্রিবিউনকে জানান, তার বাবা-মা পাকিস্তানে আসার পর তিনি জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৪৭ সালে ভারতের জালান্ধরের উপশহরে তার এক ভাই ও বোনকে হারিয়ে ফেলেন।

স্মৃ’তিচারণ করে কুলসুম জানান, মা সন্তানদের হারানোর জন্য অনেক কান্না করতেন। তাই আমি ভাইয়ের স’ঙ্গে দেখা করার কোনো আশাই করতাম না। কুলসুম আক্তারের বাবার বন্ধু সারদার ধা’রা সিং কয়েক বছর আগে পাকিস্তান সফর করেন। সেই সময় কুলসুমের স’ঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। তখন মায়ের মনের কোনো ভাই ও বোনকে খুঁজে পাওয়ার একটি আশা জেগে উঠে। তিনি সরদারকে হারানো এলাকা ও সন্তানদের নাম বলেছিলেন।

কয়েকদিন পর সরদার জানান, কুলসুমের বোন মা’রা গেছেন। কিন্তু ভাই এখনো জীবিত আছেন। সেই তথ্যের ভিত্তিতে ওয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ভাই আমৃ’ত সিংয়ের স’ঙ্গে যোগাযোগ করেন বোন কুলসুম এবং তারা সাক্ষাতের সি’দ্ধান্ত নেন। আমৃ’ত সিং ভারতের একটি শিখ সম্প্রদায়ের পরিবারে দত্তক হিসেবে পালিত হন। আমৃ’ত যখন তার বাবা পাকিস্তানে আছেন এবং তারা মুসলিম তখন তিনি আশ্চর্য হন। শুধু কুলসুম ও আমৃ’তের পরিবারই নয়, এ রকম অনেক ঘটনা সেই সময় হয়েছে।

আমৃ’ত সিং সবসময় চাইতেন তার আসল ভাই-বোনের স’ঙ্গে সাক্ষাৎ হোক। অবশেষে তার বোনের স’ঙ্গে সাক্ষাৎ হওয়ায় তিনি আনন্দিত। আমৃ’ত জানান, তিনি তার আসল পরিবারের স’ঙ্গে সময় কা’টাতে আবার পাকিস্তানে আসবেন এবং তার আসল পরিবারকে ভারতে থাকা শিখ পরিবারের স’ঙ্গে সাক্ষাৎ করাবেন।