free hit counter

রোগ প্র’তিরোধে বাতাবি লেবু

বাতাবি লেবুতে আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি। এটি রোগপ্রতিরোধ এবং রোগ নিরাময়ে সহায়তা করে। এই ভিটামিন বিভিন্ন ধরনের ভাইরাল ইনফেকশন, সর্দি-কাশি ও ঠাণ্ডার হাত থেকে রক্ষা

করে এবং দে’হে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। ভিটামিন সি দে’হের ক্ষতস্থান দ্রুত নিরাময়ে সহায়তা করে, দে’হের ত্বক মসৃণ ও ভালো রাখে।

দেশের সব অঞ্চলেই কম-বেশি এ ফলের চাষ হয়ে থাকে। বাতাবি লেবু ভিটামিন সি সমৃ’’দ্ধ ফল। এতে ভিটামিন সি রয়েছে ১০৫ মিলিগ্রাম,

যেখানে লেবুতে রয়েছে ৬৩ মিলিগ্রাম, কমলাতে ৩৪ মিলিগ্রাম, কামর’া’ঙ্গায় ৬১ মিলিগ্রমি, আমড়ায় দুই মিলিগ্রাম। এই ফলের রাসায়নিক নামি

এসকরবিক এ’সিড। পুষ্টিবিজ্ঞানীদের মতে, প্রতি ১০০ গ্রাম (খাদ্যোপযোগী) বাতাবি লেবুতে ভিটামিন সি বাদে যে সমস্ত পুষ্টি উপাদান রয়েছে তা হলো- শ্বেতসার-৮.৫ গ্রাম, আমিষ-০.৫ গ্রাম, সে-০.৩ গ্রাম, ভিটামিন বি-০.০৬ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি,০.০৪ মিলিগ্রাম, ক্যালসিয়াম-৩৭ মিলিগ্রাম, আয়রন-০.২ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন-১২০ মাইক্রোগ্রাম, খাদ্যশক্তি-৩৮ কিলোক্যালোরি।

গ’র্ভবতী মা এবং গ’র্ভস্থ শিশুর সুস্বাস্থ্যের জন্য ভিটামিন সি অত্যন্ত দরকারি। বাতাবি লেবুতে ভিটামিন সি, কারোটিন থাকায় এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে দে’হের বার্ধক্য প্রতিরোধে সহায়তা করে।

ভিটামিন সি এর অভাবে র’ক্তস্বল্পতা ও দুর্বলতা দেখা দেয়, র’ক্তপাত হলে সহজেই বন্ধ হয় না, শিশুদের দৈহিক বৃ’দ্ধি ব্যা’হত হয়। ভিটামিন সি মুখ গহ্বর, পাকস্থলি, ফুসফুস, অ’গ্ন্যাশয় এবং স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। বাতাবি লেবুতে পর্যা’প্ত পেকটিন থাকায় স্কোয়াশ ও জেলি প্রস্তুতে এটি ব্যবহৃত হয়। বাতাবি লেবুর রস ডায়াবেটিস রোগীর জন্য খুব উপকারী।