free hit counter

এই ‘গোপন ইচ্ছা’ না’রীদের থেকে সবসময়ই লু’কিয়ে রাখেন পু’রুষরা

পুরুষ ও নারী নির্বিশেষে প্রত্যেকের মনেই কিছু সু’প্ত চাওয়া থাকে। এটায় আলাদা করে দেখার কিছু নেই। একজন নারীর মধ্য়েও যেমন কিছু গো’পন ইচ্ছে থাকে, আবার পুরুষদের মধ্যেও কিছু

গো’পন ইচ্ছা থাকে। তা সবায় সবসময় প্রকাশ করতে পারে না। বুঝে শুনে তবেই প্রকাশ করতে হয়। কিংবা কোনোদিন হয়তো প্রকাশ করা হয়

না। পুরুষদের ক্ষেত্রেও বি’ষয়টি তাই। তাদের মধ্য়ে এমন কিছু সু’প্ত বাসনা বা ইচ্ছে থাকে, যা তারা কখনো প্রকাশ করেন না। বিশেষ করে নারীদের সামনে তো সেই কথা বলতেও পারেন না।

সেই রহস্যই আজ জেনে নিন। >>প্রেমিকার তাকে ‘প্রয়োজন’। অনেক মনোবিদই এই দিকটি উল্লেখ করেছেন। তারা বলেন যে, লক্ষ্য করে

দেখা যায়, অনেক পুরুষই সম্পর্কে এরকম অনুভব করতে ভালোবাসেন। তিনি মনে করেন যে, প্রেমিকার তাকে প্রয়োজন! যখন তারা বুঝতে পারেন যে, তাদের হয়তো সম্পর্কে আর কোনো

প্রয়োজনীয়তা নেই। কিংবা তার প্রেমিকা নিজেই নিজের সব কাজ করে নিতে পারেন। সেই সময়ে তার আকর্ষণ কমতে থাকে। এমনকী সম্পর্ক থেকেও তিনি দূরে চলে যেতে থাকেন।

>>দায়িত্ব? সেটা আবার কী? পুরুষরা অনেক বয়স পর্যন্ত চিন্তামুক্ত হয়ে থাকতে চান। যেন কোনো কাজেই সেরকম মন নেই। তার চারপাশে যারা আছেন, যাদের জীবনে তার অত্যন্ত গু’রুত্ব আছে, তাদের তো আরো বেশি করে গু’রুত্ব দিতে চান না। তার চারপাশে যা যা আছে, তাদের গু’রুত্ব না দিলেও হবে বলে মনে করেন। এবং এক সময় যখন তার উপর অনেক দায়িত্ব চলে আসে, তখন সেই দায়িত্ব নিতেও ক্লান্ত বোধ করেন তারা। তবে সব পুরুষের ক্ষেত্রেই যে এমন হবে, তা আমর’া বলছি না। কিন্তু অনেকের ক্ষেত্রেই এটা দেখা যায়।

>>স্নেহ ও ভালোবাসা পেতে চান। পেরেন্টিংয়ের কারণে হোক বা অন্য যে কারণেই হোক, পুরুষেরা সরাসরি নিজের ইচ্ছে প্রকাশ করতে চান না বা পারেন না। যখনই নিজের মনের কথা বলার জায়গা আসে, তখনই তিনি নিজের ইচ্ছে প্রকাশ করতে পারেন না। পুরুষেরা বিশেষ করে তাদের স’ঙ্গীর থেকে বা ভালোবাসার মানুষের থেকে একটু প্রশংসা শুনতে ভালোবাসেন। স্নেহ পেতে চান। কিন্তু তা যখন হয় না, তখন তাদের মনখারাপ হয়। যখন দেখেন যে, তারা মুখে না বলায় স’ঙ্গী তার মনের কথা বুঝতেই পারলেন না, তখন বড্ড বেশি আঘা’ত পান তারা। তাই নারীরা শুনে রাখু’ন, আপনার প্রেমিক সব সময়ই প্রশংসা ও স্নেহ পেতে চান! আপনি তা দিচ্ছেন তো?

>>গু’রুত্ব পেতে চান। হ্যাঁ, অবাক করার মতোই সত্যি কথা। তারা গু’রুত্ব দিতে চান না, কিন্তু গু’রুত্ব পেতে চান! যাই হোক, তারা সব সময়ই চান যে, তাদের গু’রুত্ব দেওয়া হোক। তাদের প্রত্যেকটা কথায় গু’রুত্ব দেওয়া হোক। বিশেষ করে, ভালোবাসার সম্পর্কে তাদের স’ঙ্গীর থেকে যেন গু’রুত্ব পান তারা, এটা সব সময়ই চান। আর তা যদি না হয়, তিনি যদি এমন অনুভব করেন যে, সম্পর্কে তার কোনো গু’রুত্ব নেই, তখনই ধীরে ধীরে দূরে যেতে শুরু করেন তিনি।

>>নানারকম ‘ফ্যান্টাসি’ আছে তাদের! পুরুষদের মধ্য়ে যৌ’নতা নিয়ে নানারকম কল্পনা থাকে, নানা ফ্যান্টাসি থাকে। তারা সেই ফ্যান্টাসিকে মনের মধ্য়েই নিয়ে থাকেন। এমন কি, যা সারা পৃথিবীর কাছে অবাক করা মনে হয়, তা সেই পুরুষের কাছে অবাক করার মতো কিছু নাও ’হতে পারে। তিনি হয়তো শুধুই সেগু’লোকে বেশ গু’রুত্ব দিয়েছেন। আর সেরকম ফ্যান্টাসিকে খুব স্বাভাবিক বলেই মনে করেন। এমন কি নিজের স’ঙ্গীর কাছেও সেই কথা বোঝাতে চান। যদি তার স’ঙ্গী একসময় গিয়ে তা বুঝতে না পারেন, তখন তিনি হাল ছেড়ে দেন। আর ফ্যান্টাসি সত্যি করার কথা ভাবেন না।