free hit counter

বেশি ঘু’মালে হতে পারে অকাল ‘মৃত্যু’

বেশি ঘু’মালে ’হতে পারে অকাল মৃ’ত্যু-ঘু’ম কম হলে মানুষ যেমন নানাবিধ শারীরিক ও মানসিক সমস্যায় ভোগেন, তেমনি অতিরিক্ত ঘু’মও ক্ষ’তি

করে। যেমন নয় ঘণ্টার বেশি ঘু’মোনো ও অলস জীবনযাত্রার পরিণতি ’হতে পারে অকাল মৃ’ত্যু, এমনটাই সতর্কবাণী দিচ্ছে সাম্প্রতিক এক গবেষণা।

গবেষণা অনুযায়ী- যারা অতিরিক্ত ঘু’মান বা দিনের ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা ঘু’মিয়ে কা’টান এবং শারীরিকভাবে সক্রিয় নন, তাদের অকাল মৃ’ত্যুর আশঙ্কা চারগু’ণ বেড়ে যায়।

জেনে নিন বেশি ঘু’মানোর ফলে কী কী শারীরিক ক্ষ’তি হয়- মানসিক বিকাশে বাধা দেয়: অতিরিক্ত ঘু’মের কারণে মানসিক বিকাশ খুবই স্বল্প

হয়। এতে কাজের অগ্রগতি লোপ পায় ও মানুষ অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন। বি’ষণ্ণতা ও মনোরোগের ঝুঁকি বাড়ে: ২০১৮ সালের এক গবেষণায় জানা যায়, বেশি সময় ধরে ঘু’মোনোর ফলে মানুষের মধ্যে বি’ষণ্ণতার পরিমাণ বাড়ে। পরীক্ষায় দেখা যায়, যারা ১০ ঘণ্টা ও তার বেশি সময় ঘু’মান, তাদের মধ্যে বি’ষণ্ণতার লক্ষণ ৪৫ শতাংশ বেড়ে যায়।

ওজন বৃ’দ্ধি পায়: বেশি ঘু’মের কারণে দে’হের ওজন অস্বাভাবিক হারে বাড়তে থাকে। এসব মানুষের ওজন বৃ’দ্ধির হার ২৫ শতাংশ বেশি থাকে। অতিরিক্ত ঘু’মের কারণে স্থূলতা দেখা দিতে পারে।

হৃদযন্ত্র ক্ষ’তিগ্রস্ত হয়: নয় ঘণ্টার বেশি সময় নিয়মিত ঘু’মালে হৃদযন্ত্রের সমস্যা বাড়তে থাকে। অতিরিক্ত ঘু’মান- এমন তিন হাজার মানুষের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে, অন্যদের অ’পেক্ষা দ্বিগু’ণ পরিমাণে করো’নারি আর্টারি (হৃদরোগ) রোগের ঝুঁকিতে ভোগেন তারা।

আয়ু কমতে পারে: একটি গবেষণায় দেখা গেছে যারা বেশি ঘু’মান তাদের দ্রুত মৃ’ত্যুর আশঙ্কা অন্যদের চেয়ে ৩ শতাংশ বেশি থাকে। প্রায় ১৪ লাখ মানুষের ওপর ওই গবেষণাগু’লো করা হয়েছে।