free hit counter

আপনাকে নিয়ে ঘুম নেই পাশের বাসার ভাবির..? সামলে নেবেন যেভাবে

বিয়েবাড়ির মাঝে আচমকা আপনাকে দেখে কেউ বলে উঠলো, ‘একি…! আর প্লেটে খাবার তুলিস না, আরও মোটা হয়ে যাব’ি তো রে!’ আবার ওই একই বিয়ে বাড়িতে খানিক দূরে অন্য

কাউকে বলা হল, ‘বাব্বা… কিছু খাওনা নাকি গো? মেয়েদের এত রোগা হলে মানায় কোনো পোশাকে?’ যারা এসব কটাক্ষ করলেন, তারা

নিজেরাও জানেন না, যে মানুষগু’লোকে এই কথা বলা হল, তাদের মানসিকভাবে কতটা ক্ষ’তি করে দিয়ে গেলেন তারা! কটাক্ষ করা এসব মানুষরা নিজেদের অজান্তে কতটা মস্ত বড় ভুল

সমাজের প্রতিও করে গেলেন, তারও কোনো ঠিক ঠিকানা থাকল না! বিয়ে বাড়ি হোক বা কোনো অনুষ্ঠান, কিংবা অফিস বা বাড়ির চার

দেওয়ালের ভেতর, বডি শেমিংয়ের সমস্যা দিনে দিনে বেড়েছে। এই ঘটনা একজন মানুষের আ’ত্মবিশ্বা’সকেই চুরমা’র করে না শুধু, সমাজে ব্যধির মতো ছড়িয়েও পড়ে!

খেলে মোটা হবে, আর না খেলে রোগা হবে, এমন ধারণার বাইরেও বহু স্বাস্থ্যগত দিক রয়েছে, তা না জেনেই অনেকেই কেবল মাত্রা চেহারা ও

‘লুক’ নিয়ে ভাবনার জেরে অন্য মানুষটিকে কষ্ট দিয়ে যান। চেহারা নিয়ে কটাক্ষ বা বডি শেমিংয়ের সমস্যাকে ফুৎকারে উড়িয়ে দিতে চিকিৎসক অর্পণা গোভিল ভাস্কর কয়েকটি পন্থা বলছেন।

অন্যদের বোঝাবেন কী করে- পোশাকটি আপনার পছন্দ, কিন্তু লোকে কী বলবে সেই ভয়ে চেহারার কথা ভেবে পরতে পারছেন না? কোনও দিকে না তাকিয়ে পোশাকটি কিনে পরে ফেলুন। বাকিদের বুঝিয়ে দিন যে এই পোশাকেই আপনাকে যেন আগামী দিনে দেখতে তারা অভ্যস্ত হয়ে যান।

মনে রাখু’ন এই কথাটি- আপনি আপনার প্রিয়জনের কাছে কতটা গু’রুত্বপূর্ণ সেটা খেয়াল রাখু’ন। যারা বডি শেম করছেন তার আদৌ আপনার প্রিয়জন কি-না, সেটাও বিচার করুন। নিজের মানুষকে কষ্ট দিতে নিশ্চয়ই কেউ চাইবেন না! এক এক সময় এমনভাবে কেউ মন্তব্য করে তার কথা গায়ে না মাখাই ভালো।

বিশ্বা’স, রাখু’ন আদর্শ চেহারার ধারণায় নয়, আদর্শ সুস্থতায়। সুস্থ থাকা’টা সবচেয়ে বেশি গু’রুত্বপূর্ণ। নিজেকে নিয়ে ভাবুন, আপনার সুস্থ থাকা ও ভালো থাকা সবচেয়ে জরুরি। যারা কটাক্ষ করছেন তাদের বুঝিয়ে দিন ‘আদর্শ চেহারা’ সর্বকাল ধরে সকলে একইভাবে ধরে রাখতে পারেন না।

যারা আপনার সামনে নেতিবাচক কথা বার্তা বলছেন, তাদের এড়িয়ে চলুন। কারোর স’ঙ্গে দেখা হলেই ‘বাব্বা কী রোগা হয়েছিস?’ কিম্বা ‘আর কত মোটা হবে গো?’ দিয়ে যারা কথাবার্তা শুরু করছেন, তাদের স’ঙ্গে ভদ্রভাবে কথাবার্তা এড়িয়ে চলার পরামর’্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।