বাড়ি ফিরলেন সাত বছর আগে ‘খুন’ হওয়া যুবক

বগু’ড়ায় সাতবছর আগে খু’ন হওয়া শামীম (২৬) নামে এক যুবককে হঠাৎ দেখা গেছে সাইকেল চালিয়ে ঘোরাফেরা করতে। অথচ তাকে খু’নের মা’মলায় সাড়ে চার মাস জেল খেটেছেন আজিজার রহমান (৩১) নামের এক ব্যক্তি।

সাত বছর ধরে আ’দালতে নিয়মিত হাজিরাও দিয়ে আসছেন তিনি। দীর্ঘ সাত বছর পর সোমবার (৯ আগস্ট) সকালে হঠাৎ শামীমের দেখা

মিলেছে বগু’ড়ার সদর উপজে’লার মানিকচক এলাকায়। শামীম জীবিতের খবর ছড়িয়ে পড়লে শতশত মানুষ তাকে দেখতে আসে। পরে বগু’ড়া

সদর থানায় পু’লিশ শামীমকে হেফাজতে নিয়ে যায়। শামীম সদর উপজে’লার শাখারিয়া এলাকার বাসিন্দা। তার বাবার নাম শাহিন। আর

আজিজার রহমান পাশবর্তী মানিকচকের বাসিন্দা। তার বাবার নাম মৃ’ত ধলু প্রামাণিক। আজিজার পেশায় মুদির দোকানের কর্মচারী। আজিজার

রহমান বলেন, শামীমের কাছ থেকে এক লাখ টাকা পাওনা ছিল। সাত বছর আগে শামীমকে টাকা জন্য চাপ দেই। ওই সময়ই শামীম গ্রাম

থেকে উধাও হয়ে যায়। পরে আমা’র বিরু’দ্ধে হ’ত্যা মা’মলা করেন শামীমের মা ঝর্ণা বেগম। তিনি আরও বলেন, শামীম হ’ত্যা মা’মলাা আ’দালতে

বিচারাধীন রয়েছে। আমি এ মা’মলায় সাড়ে চারমাস জেল খেটেছি। এখনো নিয়মিত আ’দালতে হাজিরা দিয়ে আসছি। সোমবার সকালে মানিকচক

এলাকায় শামীমকে বাইসাইকেল চালিয়ে ঘোরফেরা করতে দেখি। পরে আমা’র ছোটভাই তাকে আট’ক করে। পরবর্তীতে বি’ষয়টি ছড়িয়ে পড়লে

পু’লিশ তাকে (শামীম) থানায় নিয়ে যায়। বগু’ড়ার সদর থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন, শামীম থানা হেফাজতে রয়েছেন। হ’ত্যা মা’মলাটি আ’দালতে বিচারাধীন।

error: চুরি করা নিষেধ । 🤣