১১ বছরের নাবালিকার সন্তান প্রসব, গর্ভধারণের কারণ জানে না কেউ 

মাত্র ১১ বছরের নাবালিকা। ব্রিটেনের এই বালিকাই সম্প্রতি মা হয়েছে। আর ওই সন্তান প্রসবের মাধ্যমে স্মর’ণকালের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী মা ’হতে চলেছে সে। তবে তার নাম প্রকাশ করা হয়নি।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা গেছে, মাত্র ১০ বছর বয়সের সময় ওই বালিকা গ’র্ভবতী হয়ে পড়ে। ৩০ স’প্তাহের বেশি সন্তানকে গ’র্ভে ধারণ

করার পর চলতি মাসে সন্তান প্রসব করে সে। এত কম বয়সে মা হলেও সে এবং তার সন্তান সুস্থ আছে। কিভাবে সে অন্তঃস’ত্ত্বা হয়েছে সে

বি’ষয়ে তার পরিবারের কোনো ধারণা নেই। বি’ষয়টি নিয়ে ত’দন্ত করছে সামাজিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠানগু’লো এবং কাউন্সিল প্রধানরা। বালিকাটির

পরিবারের একটি সূত্র বলেছেন, এ ঘটনা পুরো পরিবারকে ’হতাশায় ডুবিয়েছে। সন্তান জন্ম দেয়ার পর ওই বালিকাকে এখন বিশেষজ্ঞরা

সার্বক্ষণিক সেবা দিচ্ছেন। কিন্তু প্রশ্ন দেখা দিয়েছে কেউ কেন এ বি’ষয়টি জানেন না! ব্যাপারটি বেশ ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। এর আগে ব্রিটেনে

সবচেয়ে কম বয়সে সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন ট্রেসা মিডলটন। তার বয়স যখন ১২ বছর তখন তিনি ২০০৬ সালে সন্তান প্রসব করেন। তবে

সর্বশেষ ১১ বছর বয়সী মা-ই ব্রিটেনে সবচেয়ে কম বয়সী মা বলে মন্তব্য করেছেন ডক্টর ক্যারোল কুপার। তিনি বলেন, একটি মেয়ের উর্বরা

শক্তি শুরুর গড় বয়স ১১ বছর। কোনো কোনো ক্ষেত্রে এই বয়স ৮ থেকে ১৪ বছর অথবা তারও কম। মেয়েদের ওজনের কারণে অনেক

হরমোন প্রভাবিত হয়। বর্তমান সময়ে মেয়েরা একটু মোটা বা বেশি ওজনের, তাই তাদের আগেভাগেই উর্বরতা চলে আসে। এমন বয়সে মা

হলে অনেক বেশি ঝুঁকি থাকে। নানা রকম সংক্রমণ দেখা দিতে পারে। তার মতে, প্রতি ২৫০০ জন্মের মধ্যে প্রায় একটি শিশু জন্মগ্রহণ করে,

যেখানে তার মা বুঝতে পারেন না তিনি অন্তঃস’ত্ত্বা। ২০১৪ সালে একটি সন্তান জন্মগ্রহণ করে। তার মা’র বয়স ছিল ১২ বছর এবং পিতার বয়স ছিল ১৩ বছর। ব্রিটেনে পিতা ও মাতার সবচেয়ে কম বয়সের রেকর্ড তাদের দখলে।

error: চুরি করা নিষেধ । 🤣