মুখের দুর্গন্ধ হ্রাস করে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় ফিটকিরি, কিভাবে জানুন

প্রতিটি বাড়িতেই ফিটকিরি পাওয়া যায়। মানুষ সাধারণত এটি জল পরিষ্কার করতে ব্যবহার করে। তবে এর মধ্যে আরও অনেক গু’ণ রয়েছে যা খুবই কম লোক জানেন। ত্বকের সমস্যা থেকে শুরু করে শারীরিক সমস্যাগু’লি দূর করতে অনেক কাজে লাগে ফিটকিরি।

ব্যবহারের সঠিক উপায়ে টি আপনাদের জানা দরকার। সুতরাং দেরী না করে শুরু করি আজকের নিবন্ধটি। সাধারণত সাদা পাথরের মতো

দেখতে এই বস্তুটি খুব কাজে লাগে। ত্বকের বয়স বাড়ার থেকে রক্ষা করে এই ফিটকিরি। ফিটকিরি আপনার ত্বকের জন্য খুব উপকারী। এটি

বিউটি ক্রিম হিসাবেও কাজ করে। কুঁচকে যাওয়া ত্বককে টানটান করতে সহায়তা করে এই ফিটকিরি। বয়স বাড়লে রিংকেলস এর সমস্যা

সবারই হয়, ফিটকিরি ব্যবহার করলে তা চলে যায়। মুখ থেকে আসা গন্ধ অনেকেরই পছন্দ করেন না। আপনি যদি প্রতিদিন ফিটকিরি জলের

সাথে গু’লে মুখ কুলকুচি করে ফেলেন তবে আপনি মুখের গন্ধ থেকে মুক্তি পাবেন। এটি আপনার দাঁতকে সাদা করতেও সহায়তা করে। বিভিন্ন

ক্ষ’তিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে। শুধু মনে রাখবেন আপনি এই জলটি পান করবেন না। আপনার চুলে খুব বেশি উকুন থাকলে ফিটকিরি

হলো এক মাত্র নিরাময়। ফিটকিরির একটি পেস্ট বানিয়ে চুলে লাগালে উকুন গু’লি মা’রা যায়। ফিটকিরি অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্যে পরিপূর্ণ।

এটি দে’হে উপস্থিত ব্যাকটেরিয়া গু’লি কি মেরে ফেলে এই কারণে ডিওড্রেন্ট কোম্পানিগু’লো ফিটকিরি ব্যবহার করে। যদি আপনি এটি স্নানের

সময় জলের সাথে মিশিয়ে স্নান করেন তবে আপনি শরীরের গন্ধ থেকে মুক্তি পাবেন। আশা করি আপনারা ফিটকিরির এই সুবিধা গু’লি পছন্দ করেছেন। যদি পছন্দ করে থাকেন তবে আপনার প্রিয়জনের সাথে এগু’লো শেয়ার করে নিন। এইভাবে ফিটকিরির সাহায্যে সুবিধাগু’লি ঘরে বসে নিন।।

error: চুরি করা নিষেধ । 🤣