পাইপ কেটে বানানো হল মাছ ধরার টোপ, পুকুরে পেতে টান দিতেই একসাথে অনেক মাছ ধরা পড়ল, যুবকের দারুন প’দ্ধতিতে মাছ ধরার ভি’ডিওটি তুমুল ভাইরাল!

আমর’া ভাতে মাছে বা’ঙ্গালী, আর আমর’া বা’ঙ্গালীরা মাছ খেতে খুব পছন্দ করি, মাছ খাওয়ার জন্য আমর’া বিভিন্ন ভাবে মাছ শিকার করে থাকি। এবং মাছ শিকার করার জন্য আমর’া যে কৌশল ব্যবহার

করি তার প্রত্যেকটি একটি অন্যটির থেকে অন্যতম হয়, মাছ আমা’দের দে’হের আমিষের চাহিদা মেটায়, তাই আমা’দের আমিষের ঘাটতি পূরণ

করার জন্য আমর’া মাছ খেয়ে থাকি। আমিষের ঘাটতি পূরণ করার জন্য আমর’া বাজার থেকে মাছ কিনে আনি অথবা বিভিন্ন কৌশল ব্যবহার করে আমর’া নিজেরাই মাছ শিকার করে থাকি।

গ্রামে নদী-নালাতে প্রচুর পরিমাণে মাছ থাকে, আর এই মাছ শিকার করার জন্য গ্রাম্য ছেলে-মেয়েরা বিভিন্ন ধরনের নিত্যনতুন কৌশল

আবি’ষ্কার করে। তাদের এই কৌশলগু’লো এতটা কার্যকর হয় যে, অল্প সময় অনেক গু’লো মাছ ধ’রা যায়। তারা অল্প সময়ে অল্প খরচে অনেক ধরনের মাছ ধরে ফেলে যা সত্যিই অবিশ্বা’স্য কর।

আর মাছ নিয়ে ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওতে দেখা যায়, একটি কিশোর ছেলে তার নিজস্ব কৌশল ব্যবহার করে একসাথে ৩ থেকে ৪ কেজি মাছ ধরতে সক্ষম হয়েছে।

আজ আমর’া আপনাদের কাছে এই ভিডিও সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব, এবং কিভাবে ফাদ তৈরি করেছে সেই সম্পর্কে আপনাদের

জানাবো। গ্রামের ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা পুকুর থেকে অসংখ্য মাছ শিকার করে থাকে। আর তাদের এ কৌশল গু’লো হয় একদম অন্যরকম।

তারা এ ধরনের কৌশল কোন প্রতিষ্ঠান থেকে শিখে না। তারা তাদের নিজস্ব বু’দ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধরনের ফাঁ’দ তৈরি করে। আর এই ফাদটি তৈরি করার জন্য যা যা প্রয়োজন তা হচ্ছে-

একটি মোটা পাইপ,সিমেন্টের তৈরি করা একটি পাথরের পিন্ডের,মত দড়ি,মাছ ধ’রার জালের ছোট টুকরা,ভাত,কুড়া-ভুসি,কাঁকড়া,কেঁচো,শামুক ইত্যাদি।

প্রথমে একটি লম্বা পাইপ ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এরপর একটি সিমেন্টের তৈরি পাথর নিতে হবে। পাথরটি যাতে পাইপের মধ্য ডুকে যায়। এরপর সে পাথরের যেকোনো এক পাশে একটি পেরেক গেঁথে দিয়ে হবে। পেরেক টি বাকা করে দিয়ে আংটা মত করে নিতে হবে। ওই আংটার অংশে র’শি বেধে দিতে হবে। এখন মাছের খাবার তৈরি করে নেয়া যাক, মাছের খাবার তৈরি করার জন্য একটি পাত্রে কুড়া-ভুসি, ভাত নিয়ে ভালো করে একটি লাঠি দিয়ে চটকে নিতে হবে।

এরপর একটি কাঁকড়া টুকরো করে দিয়ে ভালো করে চটকে নিতে হবে। সাথে কিছু শামুক, কেঁচো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। সবগু’লো উপকরণ একসাথে নিয়ে একটি জালের টুকরোতে খাবার গু’লো ভালো করে দিয়ে পুটলির মত করে বেঁধে নিতে হবে। সিমেন্টের পাথরের অংশে বেঁধে দেওয়া র’শির সাথে পুটলিটি ভালো করে বেঁধে দিতে হবে। এখন যেখানে আপনি ফাদ পাতবেন। সেখানে গিয়ে আড়াআড়িভাবে দুটি লাঠি বা বাশ ভালো করে মাটির সাথে গেঁথে দিতে হবে,দেওয়ার পর মধ্যখানে পাইপের অংশটি রেখে।

পাইপের ভিতর পাথর এবং খাবার দিয়ে দিতে হবে। ১২ ঘণ্টা অ’পেক্ষা করার পর যখন ছেলেটি সিমেন্টের পাথরের এর অংশের লাগানো র’শি ধরে টানে তখন প্রায় একসাথে ৩ থেকে ৪ কেজি মাছ ধ’রা পড়ল। এরপর ছেলেটি আবার সেই একই রকমভাবে ফাদটি পেতে রাখল। চারপাশে এবং ভিতরে আবার খাবার দিল এভাবে আরো এক থেকে দুই ঘণ্টা অ’পেক্ষা করার পর আরও এক থেকে দুই কেজি মাছ পাওয়া পেল। আপনারা যদি এই ধরনের ফাদ বানিয়ে মাছ ধরতে চান তাহলে আমা’দের লিংকে গিয়ে ভিডিও দেখে নিতে পারেন।