মাত্র ৩ দিনে কিভাবে ব’গলের নিচের কা’লো দাগ দূর করবেন

মাত্র ৩ দিনে কিভাবে বগলের নিচের কালো দাগ দূর করবেন আজকে এই বি’ষয়ে আপনাদেরকে চমৎকার একটি টিপস শেয়ার করবো। বিভিন্ন জিনিস অনেক বছর ধরে ব্যবহার করার পরেও আপনাদের

বগলের নিচের কালো দাগ দূর হয়ে যায় না। আজকে আমর’’া আপনাদের কাছে বলে রাখলাম আমর’’া যে সকল পরামর’’্শ আপনাদের সাথে

শেয়ার করবো তা অনুসরণ করলে তিন দিনেই বগলের নিচের কালো দাগ দূর হয়ে যাব’’ে। বগলের নিচে কালো দাগ হওয়ার কারণ গু’’লো কি কি? বিভিন্ন ধরনের ডিওডোরেন্ট আমর’’া ব্যবহার করার

ফলে বগলের নিচে কালো দাগ ‘’হতে পারে। টাইট কাপড় পড়লে আমা’দের বগলের নিচে কালো দাগ ‘’হতে পারে। কারণ টাইট কাপড় বগলের

নিচের চামড়া সাথে ঘর্ষণের ফল সেখানে কালো দাগের সৃষ্টি করে। অতিরিক্ত ঘামের কারণে ও বগলের নিচে কালো দাগ ‘’হতে পারে।

হরমোনজনিত কারণে ও বগলের নিচে কালো দাগ ‘’হতে পারে। অবাঞ্ছিত লোম দূর করার সময় আমর’’া বিভিন্ন ধরনের বা ক্রিম ব্যবহার করি।

এসব ব্যবহারের ফলে আমা’দের বগলের নিচে কালো হয়ে যায়। বয়সের সাথে সাথে ও ‘’হতে পারে। জিনগত কারণে ‘’হতে পারে। বাবা-মায়ের বৈশিষ্ট্য থেকে ‘’হতে পারে।

তাহলে বন্ধুরা এখন আমর’’া জানতে পারলাম কেন আমা’দের বগলের নিচে কালো দাগ হয়ে থাকে। আমর’’া চেষ্টা করব উপরের

বি’ষয়গু’’লো এড়িয়ে চলতে অর্থাৎ ডিওডোরেন্ট ব্যবহার কমিয়ে ফেলতে, অথবা প্রাকৃতিক উপায়ে ব্যবহার করার চেষ্টা করব। পাশাপাশি

ঢিলেঢালা জামা পড়বো এর সাথে সাথে এমন ক্রিম ব্যবহার করব যা অবাঞ্ছিত লোম থেকে তুলে ফেলে সাথে বগলের নিচে কালোদাগ থেকে

দুরে রাখে। বগলের নিচের কালোদাগ দুর করার উপায়ঃ গরমের দিনে নিয়মিত গোসল করব। যাতে বগলের নিচে কালো দাগ ‘’হতে না পারে। যে সকল বি’ষয় আপনাদেরকে এডিয়ে যেতে বলেছি এ সকল বি’ষয়ে যদি আপনারা এড়িয়ে যেতে পারেন তাহলে ভবি’ষ্যতে বগলের নিচে কালো দাগ হওয়া থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করতে পারবেন।

কিন্তু বন্ধুরা যাদের বর্তমানে কালো দাগ হয়ে গেছে তারা কি এসকল বি’ষয় এড়িয়ে যাব’’ার পরেও এ ধরনের কালো দাগ দূর করতে পারবেন, উত্তর হলো না। কারণ কালো দাগ দূর করার জন্য আমা’দেরকে বিভিন্ন ধরনের উপকরণ ব্যবহার করতে হবে। এ ধরনের উপকরণ গু’’লো ব্যবহারের মধ্য দিয়ে আমর’’া আমা’দের বর্তমানে যে দাগ হয়েছে তা দূর করে ফেলতে পারব। বন্ধুরা তিনদিনের সম্পূর্ণ একটি গাইডলাইন আজ আপনাদের দিব যার মধ্য দিয়ে আপনারা খুব সহজে বগলের নিচের কালো দাগ দূর করতে পারবেনঃ

প্রথম দিনঃ যে কাজটি আপনাকে করতে হবে সেটি হল আপনাকে ভালো কোন ক্রিম দিয়ে আপনার বগলের নিচের অবাঞ্ছিত লোম গু’’লো ডিলিট করে ফেলতে হবে। এরপর একটি বাটিতে সামান্য পরিমাণে চিনি আলুর রস ও মধু নিয়ে সাথে লেবু দিয়ে আপনাকে আপনার বগলের নিচে স্ক্রা’’ব করে ফেলতে হবে। এটা অবশ্যই ১০ মিনিট সময় নিয়ে সার্কুলার মোশনে আপনাকে স্ক্রা’’ব করতে হবে। যখন আপনি এই স্ক্রা’’ব করা শেষ করবেন, এরপর গোসল করে নিবেন। তারপর একটি ভাল মশ্চারাইজার লাগিয়ে নিবেন। প্রথম দিনের মতো এখানে আপনার কাজটি শেষ।

দ্বিতীয় দিনঃ যে কাজ আপনাকে করতে হবে সেটি হল একটি বাটিতে সামান্য পরিমাণ এলোভেরা নিয়ে সাথে আলুর রস, মধু ও কালোজিরার উপকরণ মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করে নিতে হবে। এটি আপনার বগলের নিচে রেখে ২০ মিনিট অ’পেক্ষা করতে হবে। ২০ মিনিট অ’পেক্ষা করার পর আপনি গোসল করে নিবেন। তৃতীয় দিনঃ যে কাজটি আপনাকে করতে হবে সেটি হল একটি বাটিতে পেঁয়াজের রস, শসার রস,

মধু, গাজরের পেস্ট মিষ্টি কুমড়ার পেস্ট সাথে অলিব অয়েল এই উপকরণ গু’’লো নিয়ে একটি প্যাক তৈরি করে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি আপনার বগলের নিচে দিতে হবে। এরপরে এটি আপনার বগলের নিচে রেখে ২০-৩০ মিনিট অ’পেক্ষা করবেন। ২০-৩০ মিনিট অ’পেক্ষা করার পর ধুয়ে ফেলবেন। তিন দিন এই নিয়মটা আপনারা মেনে চলবেন। প্রতিদিন একই সময়ে ট্রিটমেন্ট করার চেষ্টা করবেন। বন্ধুরা এ তিন দিন আপনারা এই ট্রিটমেন্ট বিভিন্ন রকমের পারফিউম আপনারা বগলের নিচে ব্যবহার করবেন না। যে সকল পরামর’’্শগু’’লো আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম এই পরামর’’্শগু’’লো আপনারা যদি মেনে চলতে পারেন তাহলে তিন দিনের মধ্যে দারুন একটি পরিবর্তন আপনি দেখতে পাবেন।