প্রবাসে যেসব অ’প’রা’ধে জড়াচ্ছেন প্রবাসীরা

লেবাননে কয়েক বছর ধরে চলমান অর্থনৈতিক মন্দায় আইন-কানুন অনেকটা শিথিল থাকায় প্রবাসীদের অ’পরাধ প্রবণতা বেড়েই চলেছে। ম’দ, জুয়া, অ’পহরণসহ বিভিন্ন অনৈ’তিক কাজে জড়িয়ে পড়ছে কিছু বাংলাদেশি। এমতাবস্থায় হাতেগোনা কয়েকজনের অ’পরাধমূলক কর্মকাণ্ডে দেশটিতে হু’মকির মুখে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি।

লেবাননে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস সোমবার রাতে স্থানীয় বাংলাদেশিদের সতর্ক করে তাদের ফেসবুকে একটি নোটিশ দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, কতিপয় বাংলাদেশির বিরু’দ্ধে বিভিন্ন ধরনের অসামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকাসহ গণ উপদ্রব সৃষ্টি,

হাইছিলুম, আশরাফিয়ে, মুকাল্লেস, মনসুরিয়ে, নাভাসহ বিভিন্ন এলাকায় অবাধে জুয়ার আসর, নাইট ক্লাবে গিয়ে অসামাজিক কর্মকাণ্ড ও অ’প’হ’র’ণের অ’ভি’যো’গ পাওয়া গেছে।

এ ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িতদের সতর্ক করে ভবি’ষ্যতে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস। দেশটিতে বেশ কয়েক বছর ধরে স্থানীয় নাইট ক্লাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

টিকটকের নামে কিছু বাংলাদেশির উশৃঙ্খলা চরমে পৌঁছেছে। যেখানে-সেখানে টিকটকের নামে অ’শ্লী’লতা, বিভিন্ন এলাকায় অবাধে জুয়া আসরের নামে বাংলাদেশিদের নিঃস্ব,

নে’শাজাতীয় দ্রব্য সেবন, আধিপত্য বিস্তার, হ’ত্যা, অ’পহরণ করে অর্থ আ’দায় ও নারীঘটিত বিভিন্ন অনৈ’তিক কাজ বেড়েই চলেছে। এদিকে গত সোমবার (২৫ জুলাই) সাবিনা ইয়াসমিন নামে এক কর্মীকে শ্বা’সরোধ

করে হ’ত্যার দায়ে ৬ বাংলাদেশিকে গ্রে’’প্তার করেছে স্থানীয় পু’লিশ। এর আগেও বিভিন্ন অ’পরাধমূলক কর্মকাণ্ডে দূতাবাসের তথ্যানুযায়ী প্রায় ৩১ জন বাংলাদেশি স্থানীয় জে’লে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি ভোগ করছে।

এছাড়া গত কিছুদিন আগে দাওড়া এলাকায় প্রকাশ্যে দু’দল বাংলাদেশির মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয় বলে স্থানীয় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা অ’ভিযোগ করেন।

লেবানন প্রবাসী রাব্বুল শেখ বলেন, যেসব জায়গায় জুয়া ও টিকটকের নামে অসামাজিক কার্যকলাপ চলে, জড়িত বাংলাদেশিদের চিহ্নিত করে তাদের বিরু’দ্ধে দূতাবাসের শাস্তিমূলক পদ’ক্ষেপ নেওয়া দরকার।

বাংলাদেশি মিন্টু মাল বলেন, অল্প কয়েকজন বাংলাদেশির কারণে লেবাননে আমা’দের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ’হতে পারে না। এ বি’ষয়ে দূতাবাসের জোরালো পদ’ক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন। এ বি’ষয়ে দূতাবাসের প্রথম সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, প্রবাসে কিছু বাংলাদেশি এ ধরনের অ’পরাধমূলক কর্মকাণ্ড দেশের ভাবমূর্তি নষ্টসহ সাধারণ প্রবাসীদের কাজের ক্ষেত্রে এর বিরূপ প্রভাব পড়ে। আমর’া তাদের সতর্ক করে নোটিশ দিয়েছি। এরপরও যদি তারা নিজেদের সংশোধন না করে, তাহলে দূতাবাস দেশ ও সাধারণ বাংলাদেশিদের স্বার্থে তাদের বিরু’দ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে। দূতাবাসের নোটিশের পরিপ্রেক্ষিতে সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশিরা দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানিয়ে অ’পরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।এমআরএম/এমএস