ম’স্তিষ্কে টি’উমার হয়েছে কিনা বুঝবেন কীভাবে

আমা’দের সারা শরীর নিয়ন্ত্রণ করে মস্তিষ্ক। শরীরের এই গু’রুত্বপূর্ণ অ’ঙ্গ সঠিকভাবে কাজ না করলে সব কিছু এলোমেলো হয়ে যায়। মস্তিষ্কে নানামুখী সমস্যা দেখা দেয়। এর মধ্যে ব্রেন টিউমা’র

সমস্যাটি দিন দিন বেড়েই চলেছে। অনেক ধরনের ব্রেন টিউমা’র আছে। কিছু ক্যান্সারযুক্ত (ম্যালিগন্যান্ট) এবং কিছু ননক্যান্সার (বেনিন)।

কিছু ম্যালিগন্যান্ট টিউমা’র মস্তিষ্কে শুরু হয়, আর তাদের প্রাথমিক মস্তিষ্কের ক্যান্সার বলা হয়। এ ছাড়া ম্যালিগন্যান্ট ক্যান্সার শরীরের অন্য অংশ থেকে মস্তিষ্কে ছড়িয়ে পড়ে, যার ফলে সেকেন্ডারি ব্রেন টিউমা’র হয়।

মস্তিষ্কের টিউমা’রের অনেক সম্ভাব্য লক্ষণ রয়েছে। আবার যাদের মস্তিষ্কে টিউমা’র আছে, তাদের এসব লক্ষণের সবই দেখা দেবে এমনটিও

নয়। আজ জানুন এমন কিছু বি’ষয়ে, যা মস্তিষ্কের টিউমা’র নিয়ে আপনার জানা উচিত— ১. মাথাব্যথায় পরিবর্তন-অনেক বেশি পরিমাণে

মাথাব্যথা হওয়াটা মস্তিষ্কের টিউমা’রের অন্যতম একটি লক্ষণ। মস্তিষ্কের টিউমা’র একটি সংবেদনশীল স্নায়ু এবং এটি র’ক্তনালির ওপর চাপ সৃষ্টি

করতে পারে। মস্তিষ্কের টিউমা’র মস্তিষ্কে তরল পদার্থকে অবাধে প্রবাহিত ’হতে বাধা দেয় এবং বর্ধিত চাপ সাধারণত মাথাব্যথার কারণ হয়।

এমন ব্যথা সাধারণত মাইগ্রে’নের ব্যথার মতো হয় না। এর স’ঙ্গে বমিভাব, সকালে বেশি ব্যথা এবং ব্যথার কোনো ওষুধে কাজ করে না। এমনটি হলে আপনার দ্রুতই চিকিৎসকের পরামর’্শ নেওয়া উচিত।

২. খিঁচুনি-টিউমা’র মস্তিষ্কের কাঠামোর ওপর চাপ দিতে পারে। এর কারণে এটি স্নায়ুকোষের মধ্যে বৈদ্যুতিক সংকেতগু’লোতে হস্ত’ক্ষেপ করতে পারে এবং এর ফলে খিঁচুনি ’হতে পারে। খিঁচুনি কখনও কখনও মস্তিষ্কের টিউমা’রের প্রথম লক্ষণ হলেও এটি যে কোনো পর্যায়েও ’হতে পারে।

৩. মেজাজে প্রভাব
মস্তিষ্কে টিউমা’র মস্তিষ্কের কার্যকারিতা ব্যা’হত করে আপনার ব্যক্তিত্ব এবং আচরণকে প্রভাবিত করতে পারে। এ কারণে মেজাজের অনেক পরিবর্তনও ঘটতে পারে। আপনার অতিরিক্ত উদ্বি’গ্ন ভাব হলে অবহেলা না করে চিকিৎষকের পরামর’্শ নেওয়া উচিত।

৪. স্মৃ’তিশক্তি হ্রাস
স্মৃ’তিশক্তি হ্রাসের সমস্যা মস্তিষ্কের যে কোনো জায়গায় টিউমা’রের কারণে ’হতে পারে। বিশেষ করে এটি যদি টেম্পোরাল লোবকে প্রভাবিত করে তা হলে এ সমস্যা বেশি দেখা দেয়। এটি স্মৃ’তিশক্তি হ্রাসের পাশাপাশি সি’দ্ধান্ত গ্রহণে, কোনো বি’ষয়ে মনোনিবেশ করা ও সহজেই বিভ্রান্ত হওয়ার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

৫. ক্লান্তি
অল্পতেই অনেক বেশি ক্লান্ত হয়ে যাওয়া মস্কিষ্কে টিউমা’রের লক্ষণ ’হতে পারে। দুর্বল বোধ করা, শরীরের অ’ঙ্গগু’লো ভারি মনে হওয়া, দিনের মাঝামাঝি সময়ে ঘু’মিয়ে পড়া ও ফোকাস করতে না পারার মতো সমস্যা ক্যান্সারজনিত মস্তিষ্কের টিউমা’রের কারণে ’হতে পারে।

৬. বি’ষণ্নতা
মস্তিষ্কে টিউমা’র রোগীদের বি’ষণ্নতা হওয়াটা একটি সাধারণ উপসর্গ। অনুভূ’তি কমে যাওয়া, যে কোনো বি’ষয়ে অনাগ্রহ, ঘু’মের সমস্যা, অনিদ্রা, আ’ত্মহ’ত্যা বা আ’ত্মহ’ত্যার চিন্তা, অ’পরাধবোধ বা মূল্যহীনতার অনুভূ’তি ইত্যাদি বি’ষয় কাজ করতে পারে মস্তিষ্কে। তাই এমনটি হলে চিকিৎষকের পরামর’্শ নিন।